নির্যাতিত মুসলমানদের পাশে দাঁড়াতে বলছেন আহমদ শফী

কর্মসূচি ঘোষণা করলেন আল্লামা শফী মুজিববর্ষে বাংলার মাটিতে মোদিকে দেখতে চায় না মানুষ

আন্তর্জাতিক ইসলামিক কথা জাতীয় রাজনীতি

সম্প্রতি ভারতের নয়াদিল্লিতে মুসলিমদের উপর নির্মম নির্যাতন ও গণহত্যার এবং মুসলমানদের মসজিদ বাড়িঘর দোকানপাট আগুন দিয়ে পুড়িয়ে ফেলার ঘটনা মানুষের টাকা লুট করে নিয়ে যাওয়া ঘটনায় প্রতিবাদে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমীর আল্লামা শাহ আহমদ শফী ।

শুক্রবার ( ২৮ শে ফেব্রুয়ারি ) বিকেল পাঁচটায় গণমাধ্যমে বিবৃতিতে তিনি বলেন মুজিব বর্ষ উদযাপন অনুষ্ঠানে ইসলাম ও মুসলিম বিদ্বেষী ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে বাংলাদেশের জনগণ দেখতে চায় না মোদির পক্ষ-বিপক্ষ গুজরাট কাশ্মীর মুসলমানদের খুন করা হচ্ছে চরম নির্যাতন চালানো হচ্ছে মুসলমানদের ধর্মীয় মসজিদ আগুন লাগিয়ে দেওয়া হচ্ছে মোদির উগ্রবাদী হিন্দু জঙ্গি গোষ্ঠীরা মুসলমানদের উপর নির্মম অত্যাচার চালিয়ে যাচ্ছে তাই যার হাতে এখনো মুসলিম গণহত্যা ও খুনের দাগ লেগে আছে রক্ত লেগে আছে তার উপস্থিতি সম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বাংলাদেশের জনগণ মেনে নেবে না ।

তিনি আরও বলেন অবিলম্বে মোদির রাষ্ট্রীয় আমন্ত্রণ বাতিল করা হোক এদিকে বাংলাদেশ সরকার ও মুসলিম রাষ্ট্রপ্রধানদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন হেফাজতের আমির আরো বলেন ভারতীয় মুসলমানদের জান-মাল ও পবিত্রতা রক্ষায় এগিয়ে আসুন তিনি বলেন মুসলিম মুসলিম ভাই ভাই অগ্রবাদ হিন্দুরা ভারতে মুসলমানদের উপর অত্যাচার নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছে তাতে বিশ্ব মুসলিমকে আজ একজোট হয়ে তাদেরকে প্রতিহত করা উচিত ।

বিশ্ব মুসলিমদের একত্রিত হয়ে নির্যাতিত মুসলমানদের পাশে দাঁড়ানো উচিত তাদের জানমাল ও ধর্মীয় স্থাপনায় রক্ষার দায়িত্ব নেওয়া উচিত উগ্রবাদী হিন্দু সন্ত্রাসীরা মুসলিমদের উপর নির্মম অত্যাচার ও গণহত্যা চালিয়ে যাচ্ছে,
তাছাড়া তারা চাচ্ছে যে ভারত থেকে মুসলমানদেরকে বিতাড়িত করতে আজ সারা বিশ্বে মুসলমান নির্যাতিত তাই সময় হয়েছে সমস্ত মুসলিম ভাই ভাই এক হয়ে মুসলিমদের শত্রুদের প্রতিহত ও প্রতিবাদ করা যাতে তারা আর কখনো মুসলমানদের উপর নির্যাতন ও গণহত্যা চালাতে না পারে ।

তিনি আরো বলেন বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইন পাস নিয়ে মুসলমানরা সরকারের সমালোচনা ও কর্মসূচি ঘোষণা দিলে সরকারপক্ষের উগ্রবাদী জঙ্গী হিন্দুরা মুসলমানদের উপর অত্যাচার গণহত্যা চালিয়ে যাচ্ছে এবং মুসলমানদের বাড়িঘর ধর্মীয় মসজিদ দোকানপাট আগুনে পুড়িয়ে দিচ্ছে এবং দোকান থেকে টাকা-পয়সা মালামাল লুট করে নিয়ে যাচ্ছে মুসলমানদের কে অত্যাচার করছে আগুনে পুড়িয়ে দিচ্ছে এখন পর্যন্ত ভারতের দিল্লিতে ৪৫ জন নিহত হয়েছেন এবং আহত হয়ে ৩০০ জনের মতো হসপিটালে ভর্তি আছেন ।

ভারতের সরকার মুসলমানদের ওপর গণহত্যা মুসলমানদের উপর নির্মম অত্যাচারের কোনো পদক্ষেপ নেননি ভারতের সরকারের ইন্দনে উগ্রবাদী হিন্দুরা মুসলমানদের উপর নির্মম অত্যাচার এই গণহত্যা চালিয়ে যাচ্ছে ‌।

তাই তিনি মনে করেন সময় হয়েছে সমস্ত বিশ্বের মুসলমানদের এক হয়ে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে মুসলমানদের শত্রুর বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষণা করা আজ বিশ্বের মুসলমান নির্যাতিত অবহেলিত গণহত্যা হচ্ছে,
বিশ্বের প্রত্যেকটি দেশে মুসলমান নির্যাতিত হচ্ছে, মুসলিম শান্তিপ্রিয় একটি ধর্ম ইসলাম, মুসলমানরা কখনো জঙ্গি হয় না মুসলমান আজ বিশ্বের কাছে প্রমাণিত কারা জঙ্গি কারা উগ্রবাদী ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *