৩৫০ এমপির এক মাসের বেতন দেওয়ার আহ্বান: নিক্সনের

৩৫০ এমপির এক মাসের বেতন দেওয়ার আহ্বান: নিক্সনের

জাতীয় রাজনীতি

ফরিদপুর ৪ আসনের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন জাতীয় সংসদের ৩৫০ এমপির কাছে আহ্বান জানিয়েছেন তাদের সবার এক মাসের বেতন প্রধানমন্ত্রীর করোনা তহবিলে দান করার জন্য, তিনি মঙ্গলবার দুপুরে ফরিদপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলোচনাকালে এ আহ্বান জানান ।

এ সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এমপি নিক্সন জানান তার নির্বাচনী এলাকার তিনটি উপজেলা ভাঙ্গা ও চরভদ্রাসন এলাকার জনগণের বড় একটি অংশ প্রবাসী করোনা প্রভাবের শুরু থেকেই তিনি এলাকায় আশা সব প্রবাসীদের মোবাইল নাম্বার সংগ্রহ করে নিজে ফোন করে তাদের খোঁজ নিয়েছেন এবং অত্যন্ত ১৪ দিন নিজ বাড়িতে অবস্থানের অনুরোধ জানিয়েছেন ।

এছাড়াও দরিদ্র ও হতদরিদ্রদের যাতে খাদ্য অভাব না হয় সেজন্য প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া খাদ্যদ্রব্যসহ তহবিল থেকে খাদ্যদ্রব্য বিতরণ করেছেন গত চার দিন যাবত প্রতিটি বাড়ি বাড়ি গিয়ে তিনি নিজ হাতে এই ত্রাণ বিতরণ করেছেন বলে জানান ।

এর আগে এমপি নিক্সন জেলা প্রশাসকের কার্যালয় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মাঠ পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে যোগ দেন, এরপর তিনি জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা কর্মচারী ও পুলিশ প্রশাসনের সদস্যদের জন্য হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মাক্স সহ বিভিন্ন সামগ্রী জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের নিকট হস্তান্তর করেন ।

তিনি বলেন ৩৫০ জন সংসদ সদস্য যদি তাদের এক মাসের বেতন অসহায় ও গরীব দুঃখীর জন্য সরকারি তহবিলে দান করেন তাহলে বাংলাদেশ হতদরিদ্রদের সাহায্য দিতে সরকার ও প্রশাসনের কোনো সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে না, তিনি বলেন যদি আমরা এ কাজটি করতে পারি তাহলে গরিবদের সুন্দর ও বেশি পরিমাণে সাহায্য প্রদান করতে পারব ।

তিনি আরো বলেন: এই দুঃসময়ে গরিবদের সাহায্য করা সকলের উচিত কেননা প্রত্যেকটি স্বাবলম্বী ব্যক্তি ঘরে বসে অনায়াসে ভালোভাবে খাবার খেতে পারবে কিন্তু লকডাউন এর কারণে গরীব অসহায় মানুষ খেটে খাওয়া মানুষগুলো কাজ না করতে পেরে তাদের জীবন দুর্ভিক্ষের মতো কাটবে, তাঁরা খেয়ে না খেয়ে কষ্টে জীবন কাটাচ্ছে তাই আমি মনে করি প্রত্যেক এমপির এক মাসের বেতন সরকারি তহবিলে দান করা উচিত যাতে বাংলাদেশের প্রত্যেকটি জায়গায় অসহায় ও গরীব মানুষদের সাহায্য করতে পারে সরকার ।

তিনি আরো বলেন সকলের ভালোর জন্য সকলে নিরাপদ  দূরত্ব বজায় থাকবেন এবং নিরাপদ ভাবে চলাফেরা করবেন ঘরের বাহিরে প্রয়োজন ছাড়া বের হবেন না এবং বের হলেও মুখে মাক্স ব্যবহার করবেন এবং বারবার হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করবেন ।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক আতুল সর্কার, সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা লে কর্নেল মাসুদ পারভেজ, পুলিশ সুপার হালিমুজ্জামান, সিভিল সার্জন ডঃ মোঃ সিদ্দিকুর রহমান, ফরিদপুর জেলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডক্টর সাইফুল ইসলাম, শেখ মাহাতাব আলী মেথু, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক মোল্লা প্রমুখ ও উপস্থিত ছিলেন ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *