Hero alom

৫০০ পরিবারকে খাবার দিলেন: হিরো আলম

জাতীয় বিনোদন রাজনীতি

করোনা ভাইরাসের প্রভাবে পুরো বিশ্ব লন্ডভন্ড এর আছ এসে লেগেছে বাংলাদেশ ও ।
কার্যত দেশে অচল থাকায় দরিদ্র মানুষের জীবনে নেমে এসেছে অমানিশার অন্ধকার বা যারা দিন এনে দিন খায় তারা কর্মহীন অবস্থায় নিজ বাড়িতে খেয়ে না খেয়ে কাটাচ্ছে অনেকেই এগিয়ে আসছে এমন দরিদ্র মানুষের পাশে ।

এবার এগিয়ে এলেন সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে জনপ্রিয়তা পাওয়া আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম নিজ জেলা বগুড়ায় শেরপুর ও নন্দীগ্রাম এলাকার ৫০০ দরিদ্র মানুষের মধ্যে চাল ডাল নিত্যপণ্য বিতরণ করেছেন হিরো আলম ।

হিরো আলম সোশ্যাল নিউজ সাইটকে বলেন আমার খুব একটা সামর্থ্য নেই আমি যা পেরেছি করেছি তবে আমি চাই যে সমাজের বিত্তবানরা মানুষরা এগিয়ে আসুক আমি তাদের উদ্দেশ্যে বলতে চাই আপনারা তো অনেক ইনকাম করেন কিন্তু মানুষের উপকারে তো আসেন না কিন্তু এখন আল্লাহ সুযোগ করে দিয়েছেন এখন সবাই এগিয়ে আসুন তিনি আরো বলেন যে মানুষ মানুষের জন্য ।

হিরো আলম বলেন আমি সামান্য মানুষ হতে পারি কিন্তু আমি তাদের দুঃখ বুঝি কারণ আমিও তো এমনই দরিদ্র পরিবারের সন্তান ছিলাম এখন হয়তো কিছুটা আছে আল্লাহ দিয়েছেন যতোটুকু আল্লাহ দিয়েছেন সেই সামর্থ্য অনুযায়ী আমি আপনাদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছি ।

আমি এমপি পদে দাঁড়িয়ে ছিলাম মানুষের সেবা করার জন্য নির্বাচিত হয়নি তাই বলে মানুষের পাশে থাকবো না তা তো হতে পারে না মানুষের পাশে আমি সব সময়  অসহায় ও দরিদ্র মানুষের সাথে থাকবো ।

তিনি নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যদ্রব্য মানুষের কাছে বিলিয়ে দেওয়ার সময় একজন বয়স্ক মহিলার থাকা-খাওয়ার দায়ভার তিনি গ্রহণ করেন, তিনি বলেন ওই মহিলার একটি ছেলে আছে এবং সে ছেলে শহরে থাকে ওই ছেলে তার মায়ের কাছে কোন টাকা পয়সা দেয় না এমনকি খোঁজ-খবরও নেয় না, সে কথা শুনে হিরো আলম বলেন আমি ওই মহিলার দায়ভার নিলাম প্রত্যেক মাসে আমি ওই মহিলার সমস্ত খরচ চালিয়ে যাব ।

হিরো আলম আরও বলেন সকলে সকলের সামর্থ্য অনুযায়ী অসহায় ও গরীব দুঃখী মানুষদের সাহায্য করা উচিত কেননা দেশ আমাদের মানুষ ও আমাদের আমরা এক দেশে বসবাস করি সকলে আমাদের আপনজন সবার ব্যথায় আমরা ব্যথিত হব সবার খুশিতে আমরা আনন্দিত হব এটাই আমাদের বাঙালি জাতির নিয়ম তাই তিনি মনে করেন এই দুঃসময়ে সমাজের বিত্তবান ব্যক্তিরা অসহায় ও গরিবদের সাহায্য করা উচিত ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *