‘অহংকার, দাম্ভিকতা বাদ দিয়ে আলোচনায় বসুন’

সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে ২০ দলীয় জোটের শরিক দল বাংলাদেশ ন্যাপের মহাসচিব এম গোলাম মোস্তফা ভূইয়া বলেছেন, অহংকার, দাম্ভিকতা বাদ দিয়ে দেশকে রক্ষার জন্য, চলমান সংকট উত্তরণে সব নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে আলোচনায় বসুন।

বুধবার নয়াপল্টনস্থ যাদু মিয়া মিলনায়তনে মহান ভাষা আন্দোলন ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ ঢাকা মহানগর আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।

গণভবনে সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া বক্তব্যকে ‘রাজনৈতিক শিষ্টাচার বিবর্জিত’ অভিহিত করে গোলাম মোস্তফা বলেন, সোমবার প্রধানমন্ত্রী যখন সংবাদ সম্মেলনে কথা বলছিলেন, তখন তার সুর, কথা ও ভাষার মধ্যে এক নায়েকের ভাষা প্রতিধ্বনিত হচ্ছিল। জাতি অহংকার আর দাম্ভিকতা পর্যবেক্ষণ করলো।

তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়া একজন নেত্রী, যিনি দীর্ঘকাল গণতন্ত্রের জন্য সংগ্রাম করেছেন। তিনবারের নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী ছিলেন, বিরোধী দলের নেত্রী ছিলেন, যিনি জীবনে কখনো নির্বাচনে পরাজিত হননি তার সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য পরিপূর্ণভাবেই রাজনৈতিক শিষ্টাচার বহির্ভূত।

তিনি আরও বলেন, সরকার বিরোধী মতবাদকে নিয়ন্ত্রণ করতে গিয়ে মহান ভাষা আন্দোলনের চেতনাকে পদদলিত করছে। বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে প্রেরণ করে গণতন্ত্রকে হুমকির মুখে ঠেলে দিয়েছে।

গোলাম মোস্তফা বলেন, আলোচনায় বসে কীভাবে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে অংশগ্রহণমূলক সুষ্ঠু নির্বাচন হতে পারে এর ব্যবস্থা করুন। এ সংকট থেকে পরিত্রাণ পেতে জাতীয় ঐক্য সৃষ্টি করতে রাজনৈতিক দল, সুশীল সমাজ, দেশপ্রেমিক এবং গণতন্ত্রকামী মানুষ এগিয়ে আসুন।

ন্যাপ ঢাকা মহানগর সদস্য সচিব মো. শহীদুননবী ডাবলুর সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন গণতান্ত্রিক ঐক্যের আহ্বায়ক রফিকুল ইসলাম, এনডিপি ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, ন্যাপ সাংগঠনিক সম্পাদক মো. কামাল ভূইয়া, নির্বাহী সদস্য অ্যাডভোকেট এস. এম. আব্দুস সাত্তার, নগর যুগ্ম আহ্বায়ক অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম, যুবনেতা আবদুল্লাহ আল কাউছারী প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধসহ সব গণতান্ত্রিক আন্দোলনের শহীদদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

Related posts